আশ্চর্য প্রদীপ

পুরানো শহরের আকাশ জুড়ে মাঝে মাঝে উড়ে যায় উড়োজাহাজ কিংবা পাখির দল

নিচের মানুষেরা বড্ড অলস,

তারা ঘন্টার পর ঘন্টা এক যায়গায় বসে থাকে ,

অহেতুক শব্দ করে- একে অপরকে দোষারোপ করে কিন্তু তবু ঠায় দাঁড়িয়ে থাকে।

 

এই দাঁড়িয়ে থাকা মানুষগুলোর ভিতর ভিতর বেচে থাকে অসংখ্য গল্প,

সে গল্পেরা একাকি বেঁচে থাকতে থাকতে মিলিয়ে যায় ভিতরে ভিতরেই

 

এখনও পাওয়া হয়নি অনেক কিছু,

এখনো মনের কোনে রঙ্গিন জামার স্বপ্ন ভাসে

এখনও গল্প পড়ার ইচ্ছা জাগে,

এখনও হয়ত পুরো পুরি মৃত্যু হয়নি আমার

জীবনের হয়ত গল্পটা তাই এতো সুন্দর তবু

 

এই যে জীবন - হঠাত করে পাওয়া গল্পেরা

কি আছে এতে?

 

জীবনের সৌন্দর্য অনিশ্চয়তায়

জীবনের মূল্য ভালোবাসায় ।

 

এই বিশাল জনারন্যে হয়ত কোন অষ্টাদশী তরুণী কোন ছেলের হাত ধরে নিঃশব্দে সপ্নের আঁকিবুঁকি করে হেটে চলেছে।

হয়ত কোন কবি , তার হারানো কবিতা খুজে পেতে ব্যাকুল।

কোন বই বিক্রেতা তার সামনে ছড়ানো বইয়ের দিকে তাকিয়ে ভাবছে কখনোকি এই বইগুলো পড়া হবে তার?

 

চায়ের দোকানের সল্পমেয়াদী আড্ডায় কিনবা ধুলোভরা রাস্তার প্রেমিকেরা,

সবারই কত পথ হাটার ইচ্ছা

কি অদ্ভুত সব কথা এই সদের,

নিঃশব্দে নীরবে এরা বেচে থাকে মানুষের মনের ভেতর,

একেকটা জীবন যেন একেকটা আশ্চর্য প্রদীপ ।

 

 

 

 

 

 ছবিঃ লেখক