মূলত তোমার নামে আমি কোন কবিতা লিখিনা

তোমাকে দেখলে কি হৃদ স্পন্দন থেমে যাওয়ার কথা?

তাহলে তো মারা যাবো!

 

 

 

মূলত তোমার নামে আমি কোন কবিতা লিখিনা,

যেটা দেখ, ওটা আমার অভিনয়।

তোমার নামে আমার কোন ভবিষ্যত বানি নে্‌
নেই একটাও কবিগানের আসর,
তুমি মূলত আমার কল্পিত মিথ্যার একটা বানানো কোমল বিছানা ,
আমার ঘুমের ভার এখন তোমার হাতে।।

 

 

একটা গ্লোবাল সিটিজেনসিপের ব্যাবস্থা করা উচিত । যার একটা বড়সড় requirement থাকবে । কেউ সব দাবী পূরন করতে পারলে তাকে সম্মানসূচক সিটিজেনসিপের ব্যাবস্থা করা হবে। সে হবে সারা দুনিয়ার নাগরিক। সব দেশেই তাকে সম্মানের সাথে গ্রহণ করা হবে।

 

সামনের পৃথিবীতে এই নিয়ম অবশ্যই করা উচিত।

 

 

খোলা পকেট, জানালা,

দাম জিজ্ঞাসা করতে নেই, সব ফিক্সড প্রাইস

অন্ধকার পাওয়া দায়,

কে যেন বলেছে, মন্ত্রীর গাঁয়ে গন্ধ নেই

কি আছে, কি ই বা ভাসে
সকলের মুখ, সুখ সুখ চকচকে খোঁজে
চারকোনা পর্দায় চেনা মুখ
কে যে কার, আর কি ই বা আছে ভালোবাসার
তোমার জন্য ভেবে রাখা পদ্যেরও পাঠকের অভাব।

 

আর কোন প্রেমিক নেই
সব গন্ধের একই নাম, একই শব্দ, একই ক্লাইমেক্স!
নেই কোন শহর, নেই কোন গ্রাম,
নেই কোন বিপ্লব ,
চারিদিকে শুধু সাজানো পোশাকে ধরা ,
পরিচিত দেহেরা ।
আর অবশিষ্ট নেই কোন কবিতার লাইন, কাটা মাথা, পাথুরে ঘাস

আলোকজ্জল পর্দা হাতে ,
ভেসে আসতে থাকে মুখেরা, কথারা , ভাষারা

সেখানে হাসে, সেখানে নাচে

সেখানে না চিনতেও ভালোবাসে ।।

 

- আসিফ সালমান (জুলাই,১৭ - ঢাকা)

 

 Photo: Asif Salman